হোম বর্ধমানের ইতিকথাবর্ধমানের গর্ব দিগ্বিজয়ী দিগন্তিকা

দিগ্বিজয়ী দিগন্তিকা

প্রকাশক ক্রমবর্ধমান

হাজারো সচেতনতার প্রচার সত্ত্বেও রোখা যাচ্ছে না দুর্ঘটনায় প্রাণহাণির ঘটনা । এই বিষয়টি ভাবিয়ে তুলেছিল একাদশ শ্রেণিতে পাঠরত পূর্ব বর্ধমানের মেমারি ভি এম ইন্সটিটিউশন ইউনিট ২ এর ছাত্রী দিগন্তিকা বোস কে। দিগন্তিকা আবিস্কার করেছে দুর্ঘটনা থেকে রক্ষা পাবার বিশেষ যন্ত্র, যা ব্যবহারে দুর্ঘটনা থেকে যেমন রক্ষা পাওয়া যাবে, তেমনি কমবে বায়ু দূষণ । দিগন্তিকার আবিস্কৃত এই যন্ত্র ইতিমধ্যেই দেশ জুড়ে সাড়া ফেলে দিয়েছে ।

দিগন্তিকা হাতে প্রথম পুরস্কার তুলে দিচ্ছেন  বর্ধমান বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক মাননীয় নিমাই চন্দ্র সাহা মহাশয়

কি সেই যন্ত্র যা দিয়ে দুর্ঘটনা রোখা যাবে ? টেকনোলজি ও মানুষের ইমোশনকে কাজে লাগিয়ে সে উদ্ভাবন করেছে এই বিশেষ যন্ত্র, যা কোন বাইক বা কারে ব্যবহার করলে গাড়ি চালানোর সময়ে চালকের গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে এবং সেই সঙ্গে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার সাহায্যে প্রয়োজন অনুযায়ী বিভিন্ন ইমোশনাল স্পিচের মাধ্যমেও চালককে নিয়ন্ত্রণ করে। এছাড়াও বিশেষ হুইসপারিং শব্দের সাহায্যে চালকের শরীরের অ্যাড্রিনালিন হরমোন ক্ষরন তরান্বিত করে অ্যাক্সিডেন্টের হাত থেকে রক্ষা করে । মাত্র ৫০০ টাকা খরচে সে এই অভিনব যন্ত্র তৈরী করতে সক্ষম হয়েছে। এই যন্ত্র শুধু দুর্ঘটনা রুখতে সহায়ক ভূমিকা নেবে তাই নয়, কমাবে বায়ু দূষণও ।তার আবিস্কৃত যন্ত্রের পোষাকি নাম ‘টেকনোলজি উইথ ইমোশন বেসড অ্যান্টি কলিসন ডিভাইস ফর ভেহিকেইলস ’। কার্যকারিতা পরীক্ষায় সফল হবার পর দিগন্তিকার আবিস্কৃত যন্ত্রের পেটেন্টের ব্যবস্থাও হয়েছে । ভারত সরকারের মিনিস্ট্রী অফ কমার্স স্টার্টআপ প্রোজেক্টের অন্তর্ভুক্ত হয়েছে দিগন্তিকার আবিস্কৃত যন্ত্র । এই যন্ত্র আবিস্কারের জন্য দিগন্তিকাকে রাজ্যের দুই মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস এবং লক্ষ্মীরতন শুক্লা পুরস্কৃত করেছেন । ছাত্রীর এই কৃতিত্ব স্বরূপ দিগন্তিকার স্কুল কে ৫০ হাজার টাকা অনুদানও দিয়েছে রাজ্য সরকার । নতুন এই আবিস্কৃত যন্ত্র আগামী ১৪ জানুয়ারি পুনরায় কলকাতায় প্রদর্শণের জন্য দিগন্তিকা কেন্দ্রীয় সরকারী সংস্থা বিড়লা ইনডাস্ট্রিয়াল এন্ড টেকনোলজিক্যাল মিউজিয়ামের তরফে আমন্ত্রণ পেয়েছে । এছাড়াও এই যন্ত্র আবিস্কার সংক্রান্ত গবেষণা পত্র আহমেদাবাদের ইন্ডিয়ান ইনস্টিটিউট অফ ম্যানেজমেন্টের সেমিনারে পাঠের জন্য ডিএসটি গভর্মেন্ট অফ ইন্ডিয়ার তরফে দিগন্তিকা আমন্ত্রণ পেয়েছে।

দিগন্তিকার আবিষ্কৃত ‘স্মার্ট সার্ভিক্যাল কলার’ দেখছেন ভারতের প্রাক্তন রাষ্ট্রপতি মাননীয় শ্রী প্রণব মুখোপাধ্যায় 

বিজ্ঞানে নানা অভিনব আবিস্কারের কৃতিত্ব দেখিয়ে চলেছে দিগন্তিকা । সে যে এবারই প্রথম বিশেষ যন্ত্র আবিস্কারের কৃতিত্ব দেখালো, এমনটা নয় । ইতিপূর্বে দিগন্তিকা ডাষ্ট কালেক্টিং অ্যাটাচমেন্ট ফর ড্রিল মেশিন আবিস্কার করে তাক লাগিয়ে দিয়েছিল । গত ২১ সেপ্টেম্বর তার আবিস্কৃত ওই যন্ত্রের গবেষণা পত্র আন্তর্জাতিক জার্নালেও প্রকাশিত হয়েছে । এছাড়াও সুন্দরবনে মধু সংগ্রহে যাওয়া মউলদের বাঘের আক্রমনের হাত থেকে বাঁচার জন্য এক ধরনের চশমা আবিস্কার করেছিল দিগন্তিকা । ওই চশমা ব্যবহার করে মউলরা মাথা বা ঘাড় না ঘুরিয়ে পিছনের বাঘকে দেখে আত্মরক্ষার পথ খুঁজে পায় । এছাড়াও স্পন্ডিলাইটিস রোগীদের জন্য বারনৌলির সূত্র কাজে লাগিয়ে ‘স্মার্ট সার্ভিক্যাল কলার’ আবিস্কার করেছে মেমারির এই ছাত্রী, যা ব্যবহারে রোগি প্রচন্ড গরমেও কষ্ট পাবেন না । ইতিমধ্যে দু’বার রাষ্ট্রীয় পুরস্কার তার দখলে।

দিগন্তিকার আবিষ্কৃত ডাস্ট কালেক্টিং অ্যাটাচমেন্ট ফর ড্রিল মেশিন দেখছেন ভারতের বর্তমান রাষ্ট্রপতি  মাননীয় শ্রী রামনাথ কোবিন্দ

দিগন্তিকার বৈজ্ঞানিক আবিষ্কারের স্বীকৃতিগুলি একনজরে দেখে নেওয়া যাক –

ডঃ এ পি জে আবদুল কালাম ইগনাইট অ্যাওয়ার্ড, দুই বার (ভারত সরকার)
স্টার্ট আপ ইন্ডিয়া অ্যাওয়ার্ড (আই আই টি ভুবনেশ্বর, যে জন্য সে আই আই টি ভুবনেশ্বরে বিনা মূল্যে গবেষণার সুযোগ পেয়েছে),২৫তম চিল্ড্রেন্স সাইন্স কংগ্রেস ( জাতীয় , রাজ্য , জেলা স্তরে বিশেষ স্বীকৃতি ) আয়োজক ভারত সরকার ,Certificate of Appreciation Mission to Touch The Sun ‘PARKER SOLAR PROBE’ Project by National Aeronautics and Space Administration (NASA) USA, ফেস্টিভ্যাল অফ ইনভেনশন (রাষ্ট্রপতি ভবনের আমন্ত্রণ), CSIR , Govt.of India তে তার প্রজেক্ট এর বিষয়ে বলার জন্য আমন্ত্রণ পায়, 4th Regional Science and Technology Congress 2019-20 Organised by Dept.of Science & Tech.Govt.of West Bengal and University of Burdwan
first prize awarded for best presentation and innovation. দিগন্তিকাকে ব্যাঙ্গালুরুর মালেশ্বরমে স্যার সি ভি রমনের বাড়িতে ওর আবিষ্কার প্রদর্শনী ও গবেষণা পত্র পাঠের বিরল সন্মান দেওয়া হয়। ২০১৯ এ পূর্ব বর্ধমান জেলা পুলিশ ও পূর্ব বর্ধমান মহিলা থানা দিগন্তিকাকে বিশেষ সম্মান প্রদর্শন করে। ২০১৯ এ কোলকাতায় অনুষ্ঠিত সপ্তম ইণ্ডিয়া ন্যাশনাল এক্সিবিশন কাম ফেয়ারে ওর আবিষ্কার প্রদর্শনে ভারত সরকারের তরফ থেকে ডাক পায় । ২০১৯ এ কালিম্পং সাইন্স সেন্টারে দিগন্তিকার ইনভেনশন প্রদর্শিত হয় ও তাকে বিশেষ সম্মান প্রদান করেন এস ডিও কালিম্পং, কিউরেটর কালিম্পং সাইন্স সেন্টার ।

পশ্চিমবঙ্গ সরকার এর মাননীয় মন্ত্রী শ্রী অরুপ বিশ্বাস ও লক্ষ্মীরতন শুক্লার কাছ থেকে সন্মাননা গ্ৰহণ করছে দিগন্তিকা 


পশ্চিম বঙ্গ রাজ্য ছাত্র যুব বিজ্ঞান মেলা (আউটস্ট্যান্ডিং প্রজেক্টে ), যেখানে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের পক্ষে মন্ত্রী লক্ষ্মীরতন শুক্লা ও অরূপ বিশ্বাস তার হাতে তুলে দেন। ২০১৭,২০১৮,২০১৯, Director The Indian Institute of Engineering (IIEST) Shibpur, Prof. Sri Ajoy Kumar Roy তাঁদের ল্যাবে আমন্ত্রণ জানান । পঞ্চরত্ন ২০১৭ মেমারি মিউনিসিপ্যালিটি , মেমারি মিউনিসিপ্যালিটির একটি স্বল্প সঞ্চয় গোষ্ঠীর নাম দিগন্তিকার নামে নামকরণ করা হয় । Veer Surendra Sai University of Technology Odishaতে তার প্রজেক্ট এর বিষয়ে বলার জন্য আমন্ত্রণ পায়। 25th West Bengal State Science & Technology Congress এ অংশগ্রহণে ডাক পায় ও সম্বর্ধনা দেওয়া হয়।

দিগন্তিকাকে কালিম্পং সায়েন্স সেন্টারে সন্মাননা জানাচ্ছেন এস ডি ও কালিম্পং
□ প্রতিবেদন : সুদীপ্ত বোস
□ ছবি : সুদীপ্ত বোস
□ ওয়েবসাইট : http://kramabardhaman.com
□ লেখা ও ছবি পাঠানোর ঠিকানা :
□ ইমেইল : [email protected]
□ https://www.facebook.com/Kramabardhaman
0 কমেন্ট
0

Related Articles

কমেন্ট করুন