হোম বর্ধমানের ইতিকথা বর্ধমানের তিন রাজা একত্রে

বর্ধমানের তিন রাজা একত্রে

প্রকাশক ক্রমবর্ধমান
বর্ধমানে তিন রাজা একত্রে

“য: পিতা স পুন: পুত্রো য: পুত্রো: স পুন: পিতা”।।

তিন রাজা একত্রে । রাজা শ্রীযুক্ত বনবিহারী কাপুর , সি, আই, ই , বাহাদুর ; বর্দ্ধমানাধিপতি মহারাজাধিরাজ স্যার শ্রীযুক্ত বিজয় চাঁদ মহাতাব বাহাদুর ; মহারাজাধিরাজ কুমার শ্রীযুক্ত উদয়চাঁদ মাহতাব-একই ফ্রেমে। মহারাজ বিজয়চাঁদ মহাতাবের পিতা রাজা বনবিহারী কাপুর ও পুত্র উদয়চাঁদ মহাতাব । বর্ধমান মহারাজাদের এই দুস্প্রাপ্য ছবিটি প্রকাশিত হয়েছিল কলকাতা থেকে প্রকাশিত ‘ভারতবর্ষ ’ নামক বাংলা মাসিক পত্রিকায় । বিখ্যাত নাট্যকার দ্বিজেন্দ্রলাল রায় ছিলেন পত্রিকাটির প্রতিষ্ঠাতা। ‘ভারতবর্ষ ’পত্রিকা ১৯১৩ সালের জুন মাসে (১ আষাঢ়, ১৩২০) প্রথম প্রকাশিত হয়। জলধর সেন দীর্ঘকাল এই পত্রিকার সম্পাদনার কাজে যুক্ত ছিলেন । মহারাজা আফতাবচাঁদের মৃত্যুর পরে দেওয়ান বনবিহারী কাপুর কিছুদিন বর্ধমানের রাজকার্য চালিয়েছিলেন । তাই তিনি রাজা উপাধি পান । বনবিহারী কাপুরের পুত্র বিজনবিহারী কাপুরকে দত্ত্বক নেন নিঃসন্তান আফতাব চাঁদের স্ত্রী বেনদেয়ী দেবী। এই বিজনবিহারী কাপুরই বিজয়চাঁদ মহাতাব নাম নিয়ে সিংহাসনে বসেন । বিজয়চাঁদ মহাতাবের পর সিংহাসনে বসেন তাঁর পুত্র উদয় চাঁদ মহাতাব । উদয়চাঁদ মহাতাব শাসন করেন ১৯৫৪ সালে জমিদারী প্রথা উচ্ছেদের আইন প্রনয়ন পর্যন্ত । উদয়চাঁদ মহাতাবই বর্ধমানের শেষ রাজা ।

বাংলা ভাষা ও সাহিত্যের উন্নয়নে ‘ভারতবর্ষ ’পত্রিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেছে। শরৎচন্দ্র চট্টোপাধ্যায়ের অধিকাংশ উপন্যাস এ পত্রিকায় ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হয়েছিল। এছাড়াও তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়, বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়, বনফুল (বলাইচাঁদ মুখোপাধ্যায়), প্রেমেন্দ্র মিত্র, নারায়ণ গঙ্গোপাধ্যায়, সমরেশ বসু, আশাপূর্ণা দেবী, আনন্দশংকর রায় এবং জসীমউদ্দীন এ পত্রিকায় নিয়মিতভাবে লিখতেন। ভাষাবিদ সুনীতিকুমার চট্টোপাধ্যায়, ইতিহাসবিদ রমেশচন্দ্র মজুমদার, প্রত্নতত্ত্ববিদ রাখালদাস বন্দোপাধ্যায়, বিজ্ঞানী প্রফুল্লচন্দ্র রায় ও মেঘনাদ সাহা, অপরাধতত্ত্ববিদ পঞ্চানন ঘোষাল, জাদুকর পি.সি সরকার প্রমুখ এ পত্রিকায় প্রবন্ধ লিখেছেন। ১৯৬৯-৭০ সালে ‘ভারতবর্ষ ’পত্রিকার প্রকাশনা বন্ধ হয়ে যায়। মহারাজ বিজয়চাঁদ মহাতাবের সঙ্গে ‘ভারতবর্ষ ’পত্রিকার সুসম্পর্ক ছিল । এই পত্রিকার প্রথম সংখ্যায় প্রকাশিত হয় মহারাজ বিজয়চাঁদ মহাতাবের একটি ভ্রমন কাহিনী ‘আমার ইউরোপ ভ্রমণ’। সাহিত্য অনুরাগী মহারাজ বিজয়চাঁদ এই পত্রিকায় মাঝেমধ্যেই লিখতেন ।

 □ প্রতিবেদন : দিব্যসুন্দর কুণ্ডু
 □ ছবি কৃতিত্ব : রাজা পোদ্দার
 □ তথ্যসূত্র : ‘ভারতবর্ষ ’ পত্রিকা, রাজা পোদ্দার,বাংলাপিডিয়া ।
 □ কৃতজ্ঞতা : ঋতুপর্ণা গাঙ্গুলী ব্যানার্জী, কেকা কুন্ডু
 □ ইমেল mailto:[email protected]
1 কমেন্ট
4

Related Articles

1 কমেন্ট

Rituparna Ganguly December 22, 2019 - 7:38 pm

দুস্প্রাপ্য ছবি দেখার সুযোগ হলো

উত্তর

কমেন্ট করুন